Power Bank – পাওয়ার ব্যাংক কেনার আগে যে চারটি বিষয় বিবেচনা করা উচিত

আমাদের আধুনিক যন্ত্রময় জীবনে স্মার্টফোন, ট্যাবলেট-এর মত নানা ধরণের ডিভাইসের ব্যবহার দিন দিন বেড়েই চলেছে। স্বাভাবিকভাবেই বাড়ছে এ গ্যাজেটগুলোর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন ধরণের যন্ত্রানুশঙ্গের ব্যবহারও। সমকালীন এ সকল যন্ত্র গুলোর মধ্যে পাওয়ার ব্যাংক নিঃসন্দেহে একটি অত্যন্ত জরুরী এবং প্রয়োজনীয় ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস। স্মার্টফোন থেকে শুরু করে ট্যাবলেট ডিভাইস, বিভিন্ন ধরণের ক্যামেরা বা এমপিথ্রি প্লেয়ার পর্যন্ত- লিথিয়াম আয়ন বা লিথিয়াম পলিমার রিচার্জেবল ব্যাটারীচালিত যে কোন ডিভাইসের ক্ষেত্রে পাওয়ার ব্যাংক প্রয়োজনীয় শক্তি সরবরাহ করে থাকে। জরুরী সময়ের তাৎক্ষণিক সেবা প্রাপ্তি ছাড়াও ভ্রমণ বা আপদকালীন সময়েই মূলত এ যন্ত্রের সুবিধাটি সবচেয়ে বেশি অনুধাবন করা যায়। আর এ সকল কারণেই আমাদের দেশেও এ পণ্যটির বাজার তৈরি হয়েছে।
স্মার্টফোন চার্জ রাতে নাকি দিনে?

বর্তমানে আমাদের বাজারে নানা ব্র্যান্ড এবং মডেলের পাওয়ার ব্যাংক পাওয়া যাচ্ছে। বিভিন্ন ব্র্যান্ড এবং মডেলভেদে এ ডিভাইসটির খুব বেশি তফাৎ না থাকলেও আপনার নিজস্ব প্রয়োজন মেটাতে সক্ষম এমন একটি ডিভাইস খুঁজে নেয়া খুব একটা সহজ কাজ নয়। এ লেখাটিতে তাই এমন চারটি বিষয়ের কথা উল্লেখ করা হয়েছে, যা আপনাকে একটি ভাল মানের পাওয়ার ব্যাংক কিনতে সাহায্য করবে। এবার চলুন জেনে নেই সে চারটি টিপস সম্পর্কে।

১. ধারণক্ষমতা:

পাওয়ার ব্যাংক সহ অন্যান্য রিচার্জেবল ব্যাটারীর চার্জ ধারণক্ষমতাকে mAh (মিলি এ্যাম্পিয়ার পার আওয়ার) একক দিয়ে পরিমাপ করা হয়। আধুনিক সময়ের পাওয়ার ব্যাংক মডেলগুলোর ব্যাটারী সাধারণত চার হাজার mAh থেকে ২০ হাজার mAh পর্যন্ত বা তার বেশিও হয়ে থাকে। mAh যত বেশী হবে, সে ব্যাটারী তত বেশি চার্জ ধারণ এবং সংরক্ষণ করতে সক্ষম। কিন্তু বেশী mAh আছে এমন ডিভাইসগুলোর দামটাও স্বাভাবিকভাবেই অপেক্ষাকৃত বেশি হয়ে থাকে।

২. সহজে বহন ও ব্যবহার যোগ্যতা:

বাসায় বা কর্মক্ষেত্রে থাকার সময়ে আধুনিক জীবনযাত্রার সবচেয়ে প্রয়োজনীয় নাগরিক সুবিধা বিদ্যুৎ আপনার নাগালের মধ্যেই থাকে। স্বাভাবিকভাবেই এ সময়ে পাওয়ার বাংক খুব একটা প্রয়োজন লাগেনা বললেই চলে। যেহেতু ভ্রমণকালীন সময়ে বা বিশেষ তাৎক্ষণিক প্রয়োজনেই এটা ব্যবহার হয়, তাই এ ডিভাইসটি সাধারণত আপনাকে বহন করতে হয়। তাই আপনার কেনা ডিভাইসটি যেন সহজে বহনযোগ্য আকার এবং ওজনের মধ্যে থাকে এই বিষয়টি কেনার সময়েই নিশ্চিত করে নিন।

৩. ডিভাইস এবং পাওয়ার ব্যাংকের ইনপুট/আউটপুট কারেন্ট:

অনেক সময়ে দেখা যায়, ওয়াল পোর্ট থেকে ফোন যেটুকু সময়ে ফুল চার্জ পাচ্ছে, পাওয়ার ব্যাংক থেকে ততটা দ্রুত চার্জ হচ্ছে না। এই কারণেই আপনি যে ডিসাইসটি চার্জ করার জন্য পাওয়ার ব্যাংক কিনতে চাচ্ছেন, সে ডিভাইসটির ইনপুট কারেন্ট পাওয়ার ব্যাংক কেনার ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। সাধারণত, ইদানীং কালের এন্ড্রয়েড স্মার্টফোনগুলোতে 1.5A চার্জিং ইন্টারফেস ব্যবহার হয়। এক্ষেত্রে আপনার পাওয়ার ব্যাংকটি যদি 1A হয়, তবে আপনার ফোন স্বাভাবিকের তুলনায় ধীরে চার্জ গ্রহণ করবে। সবচেয়ে ভাল সার্ভিস পেতে এন্ড্রয়েডচালিত ট্যাবলেট বা স্মার্টফোনের ক্ষেত্রে পাওয়ার ব্যাংকটির চার্জিং ইন্টারফেস অন্তত 1.5A এবং আইফোন বা আইপ্যাডের ক্ষেত্রে অন্তত 2.1A হওয়া উচিত। একইভাবে পাওয়ার ব্যাংক ডিভাইসটির ইনপুট চার্জিং ইন্টারফেস অন্তত 1A হওযা উচিত।

৪. পোর্টের সংখ্যা:

অনেক আধুনিক ব্যাটারী প্যাক ডিভাইসগুলোতে একই সঙ্গে একের বেশী ডিভাইস চার্জ করার জন্য বাড়তি পোর্ট থাকে। আপনিও যদি এমন সুবিধা চান তবে কেনার আগেই পাওয়ার ব্যাংক ডিভাইসটির পোর্ট সংখ্যা জেনে নিন। তবে এই সুবিধাটি বিশেষত বেশী চার্জ ধারণক্ষম ডিভাইসগুলোর ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য হয়।

Brandbazaarbd.com
Shop No # 29-30, 1st Floor, House No # 3, Road No # 3, Dhanmondi, (Back Side of City College) , Dhaka-1205
Mobile: 01618028590 / 01619550030
Email: brandbazaarbd@gmail.com.
https://www.facebook.com/brandbazaarbd