এসি কেনার টিপ্‌স , কত স্কয়ার ফুটে, কত টন ক্ষমতাসম্পন্ন এসি

এসি কেনার টিপ্‌স , কত স্কয়ার ফুটে, কত টন ক্ষমতাসম্পন্ন এসি

এসি কেনার টিপ্‌স , কত স্কয়ার ফুটে, কত টন ক্ষমতাসম্পন্ন এসি

 

 

জেনে নিন – কত স্কয়ার ফুটে, কত টন ক্ষমতাসম্পন্ন এসি, কি পরিমান বিদ্যুৎ খরচ হয়

কত স্কয়ার ফুট , কত টন ক্ষমতাসম্পন্ন এসি কি পরিমান বিদ্যুৎ খরচ হয় ?? জানেন কি?? প্রচন্ড গরম এসে গেছে এয়ারকন্ডিশন কেনার আগে জেনে নিন কোন কোন জিনিসগুলি মাথায় রাখতে হবে।
এসি কেনার আগে দেখে নিন।

রান্ড বাজার থেকে সাশ্রয়ী মূল্যে কিনতে : ক্লিক করুন


শুধুমাত্র ব্র্যান্ডমুগ্ধতা থেকে ঝপ করে এসি কিনে ফেলবেন না। ফ্রিজ-টিভি-ওয়াশিং মেশিনের মতো এসি কেনাও দরকার বুঝেশুনে। তবেই বাঁচবে বিদ্যুতের বিল এবং ঠিকঠাক ঠান্ডা হবে ঘর। দেখে নিন এয়ারকন্ডিশন কেনার ১০টি টিপ্স—
১) প্রথমেই মাথায় রাখতে হবে বিদ্যুৎ কতটা পুড়বে। এর উপর নির্ভর করে বাজারের সমস্ত এসিকে ‘স্টার’ রেটিং দেওয়া হয়। এই রেটিং দেয় ব্যুরো অফ এনার্জি এফিসিয়েন্সি। ১ থেকে ৫ পর্যন্ত হয় রেটিং। ফাইভ স্টার এসি মানেই বিদ্যুৎ পুড়বে সবচেয়ে কম। একই টনেজের এবং একই ব্র্যান্ডের ফাইভ স্টার এসির দাম অন্যান্য মডেলের চেয়ে তুলনামূলকভাবে বেশি হয়। কেনার সময়ে দাম বেশি পড়লেও ভবিষ্যতে প্রতি মাসের বিদ্যুতের কথা ভেবে যত বেশি স্টার-সম্পন্ন এসি কিনবেন, ততই আপনার পকেটের পক্ষে ভাল।

রান্ড বাজার থেকে সাশ্রয়ী মূল্যে কিনতে : ক্লিক করুন

 

কত টনের এসি

২) যত বড় এসি, তত ঠান্ডা হবে ঘর, হিসেবটা এত সোজা নয়। যদি মনে করে থাকেন যে একটি ছোট ঘরকে চিল্ড রাখতে ইয়া বড় এসি কিনতে হবে তবে ভুল ভাবছেন। ঘরের মাপ অনুযায়ী কত টনের এসি প্রয়োজন তার একটি তালিকা রয়েছে। প্রয়োজনের তুলনায় বেশি বড় এসি কিনলে ঘর ঠিকঠাক ঠান্ডা হবে না। নীচের তালিকাটি মনে রাখবেন—
ঘরের মাপ ( স্কয়ার ফুট ) | কত টনের এসি
১২০ পর্যন্ত | ১ টন
১২১ থেকে ১৮০ | ১.৫ টন
১৯০ থেকে ২৮০ | ২ টন টন
২৫১ থেকে ৪০০ | ২.৫ টন ও তার বেশি

ঘর এর থেকেও বড় হলে কোনও বড় ব্র্যান্ডের শোরুমে গিয়ে কথা বলুন। ওঁরাই বলে দেবেন কত টনের ক’টি এসি লাগবে।

Carrier 1.5 Ton Inverter AC price Price in Bangladesh | CLICK HERE

Panasonic 1,5 Ton AC price in Bangladesh: Click here 

Carrier 1.5 Ton Split AC price in Bangladesh | CLICK HERE

৩) এখন প্রায় সব বাড়িতেই স্প্লিট এসি লাগানোর চল। এই এসিগুলি উইনডো এসির চেয়ে দেখতে অনেকটাই স্লিক। তাছাড়া একটি জানলা জুড়ে বসেও থাকে না। কিন্তু যাঁরা ঘন ঘন বাড়ি পাল্টান তাঁদের পক্ষে উইনডো এসিই ভাল কারণ স্প্লিট এসির ইনস্টলেশন উইনডো এসির থেকে সহজ হলেও এর রি-ইনস্টলেশন চার্জ অপেক্ষাকৃত বেশি। তা বাদে এই দুই ধরনের এসি-তে কমবেশি একই পরিমাণ বিদ্যুৎ পোড়ে। তবে ঘর বড় হলে উইনডো এসি না কেনাই ভাল।

৪) এসি কেনার সময় ভালভাবে খেয়াল করবেন এসিতে কোনও আওয়াজ হচ্ছে কি না। স্প্লিট এসিগুলিতে আওয়াজ অনেক কম হয়। শান্তিতে ঘুমোনো বা কাজ করার পক্ষে ভাল।

৫) বাজেট খুব একটা সমস্যা না হলে রিভার্স সাইক্ল এসি কিনুন যাতে গরমকালে ঠান্ডা হাওয়া আর শীতকালে গরম হাওয়ার সুবিধা পাবেন। এগুলির দাম সাধারণ এসিগুলির তুলনায় অনেকটাই বেশি।

৬) বাড়ির সব ঘরে এসি লাগানো বেশ খরচসাপেক্ষ। সেক্ষেত্রে মাস্টার বেডরুমের জন্য একটি উইনডো বা স্প্লিট এসি কিনে সঙ্গে আর একটি পোর্টেবল এসি কিনে নিন যা এক ঘর থেকে আর এক ঘরে সহজেই তুলে নিয়ে যাওয়া যাবে। পোর্টেবল এসিগুলির দাম স্বাভাবিকভাবেই তুলনায় কম।

৭) ঘরের ভিতরের হাওয়া কেমন তার উপর কিন্তু এসির আয়ু নির্ভর করে। দূষিত বাতাস ঘরে জমে থাকলে ঘর ঠিকঠাক ঠান্ডা হয় না। ভাল ব্র্যান্ডের এসিগুলিতে ভাল এয়ার ফিল্টার থাকে। এসি কেনার সময় এই বিষয়টি মাথায় রাখবেন।

৮) যে এসি কিনছেন তাতে যেন একটি অ্যাডজাস্টেব্ল থার্মোস্ট্যাট, দু’টি কুলিং স্পিড এবং অন্ততপক্ষে দু’টি ফ্যান স্পিড থাকে যাতে ঘরের তাপমাত্রা অনুযায়ী ইচ্ছেমতো নিয়ন্ত্রণ করা যায় ঠান্ডা।

৯) আফটার সেল্স সার্ভিস যে কোনও হোম অ্যাপ্লায়েন্সের ক্ষেত্রেই গুরুত্বপূর্ণ। তাই এসি কেনার আগে কোম্পানির সার্ভিস কতটা ভাল সেই বিষয়ে ভাল করে খোঁজ খবর করে নেবেন।

১০) আর্দ্র জলবায়ু অঞ্চলে বাড়ি হলে যে সমস্ত এসির কয়েল অ্যালুমিনিয়ামে তৈরি সেই সমস্ত এসি না কেনাই ভাল। অ্যালুমিনিয়াম কয়েলে খুব তাড়াতাড়ি মরচে পড়ে যায়, গ্যাস লিক করতে থাকে এবং ঘর ঠান্ডা হয় না। তাই সব সময় কপার কয়েলের এসি কেনাই বুদ্ধিমানের কাজ। সব জলবায়ুতেই ভাল কাজ দেবে।
দরদাম

রান্ড বাজার থেকে সাশ্রয়ী মূল্যে কিনতে : ক্লিক করুন

এসির ক্ষেত্রে প্রধান সমস্যা হল ‘কুলিং’ বা ঠাণ্ডা করার ক্ষমতা কমে যাওয়া। এক্ষেত্রে এসির ভেতরের নেট খুলে ডাস্ট ক্লিনিং করে নিতে হবে। ব্যবহারকারী নিজেই সাধারণ উপায়ে এসির ইনডোর খুলে নেট ওয়াশ করে নিতে পারেন।
এছাড়া কুলিং একেবারে বন্ধ হয়ে গেলে বুঝতে হবে এসির ভেতরে গ্যাস ফুরিয়ে গেছে। এক্ষেত্রে সংশিষ্ট প্রতিষ্ঠানের গ্রাহক সেবা প্রদানকারী প্রতিনিধিদের মাধ্যমে গ্যাস রিফিল করে নিতে পারেন। বিক্রয়োত্তর সেবা প্রদানের সময় পার হয়ে গেলে সার্ভিস চার্জ প্রদান করতে হবে।

Carrier Portable AC price in Bangladesh : CLICK HERE

Portable Air Conditioner Bangladesh : Carrier 1 Ton Portable AC VS Gree 1 ton Portable AC

 

এয়ার কন্ডিশনার সেরা দামে অনলাইনে কিনুন ব্রান্ড বাজার থেকে

ব্রান্ড বাজার আপনাকে দিচ্ছে সাশ্রয়ী ও সেরা দামে সেরা এসি অনলাইনে কেনার সুবর্ণ সুযোগ। জীবনযাত্রাকে উন্নত থেকে উন্নততর করতে চাই বিভিন্ন ধরণের আধুনিক হোম অ্যাপ্লায়েন্স। সেরা অ্যাপ্লায়েন্স জীবনকে সাবলীল করার পাশাপাশি বাঁচায় অনেক সময়। ব্রান্ড বাজারে র কল্যানে বাংলাদেশে অনলাইন শপিং এখন আগের যেকোন সময়ের তুলনায় আরও সহজ ও সাবলীল। বাংলাদেশের ই-কমার্স দুনিয়ায় ব্রান্ড বাজার সংযোজন করেছে নতুন পালক। আস্থা ও নির্ভরতার সাথে অনলাইনে এসি ও এয়ার কন্ডিশনার কিনতে বাংলাদেশে BrandBazaarBD.com -এর বিকল্প কোথায়?

ব্রান্ড বাজারে রয়েছে দেশের সেরা এয়ার কন্ডিশনার -এর বিশাল সংগ্রহশালা। ব্রান্ড বাজার থেকে সেরা মানের টেকসই এয়ার কন্ডিশনার অনলাইনে কিনুন খুব সহজেই। বাংলাদেশে এয়ার কন্ডিশনারের দাম ব্রান্ড বাজারেই সবচেয়ে সাশ্রয়ী। আর তাই অনলাইনে এসি কেনার জন্য ব্রান্ড বাজারের বিকল্প শুধুই ব্রান্ড বাজার। আর সেরা এয়ার কন্ডিশনার ও এয়ার কুলার ডিল পেতে চোখ রাখুন ব্রান্ড বাজারে ।
সেরা ব্র্যান্ডের সেরা এয়ার কন্ডিশনার -এর সম্মিলন ব্রান্ড বাজার

দেশ বিদেশের বিভিন্ন জনপ্রিয় এয়ার কন্ডিশনার ব্র্যান্ড যেমন Gree, LG, General, Panasonic, Carrier, Daikin, Globe Aire, Sharp, Walton, National -এর বিশাল সম্মিলন পাবেন ব্রান্ড বাজার বাংলাদেশে। সেরা ব্র্যান্ডেড এসি কিনতে আজই ঘুরে আসুন BrandBazaarbd.com এর Display Center Dhanmondi তে। পোর্টেবল এসি, ইনভার্টার এসি থেকে স্প্লিট এসি সবই পাবেন সাশ্রয়ী দামে। এছাড়াও দারাজ অনলাইন শপে সুলভ মূল্যে পাবেন সিলিং এয়ার কন্ডিশনার। সেরা বড় অ্যাপ্লায়েন্স পণ্য অনলাইনে বেছে নিন ব্রান্ড বাজার থেকে পছন্দের সেরা দামে এখনই।

রান্ড বাজার থেকে সাশ্রয়ী মূল্যে কিনতে : ক্লিক করুন

 

 


You've just added this product to the cart: